Please wait...

মাদরাসার হিসাব অডিটকরণ পদ্ধতি

তারিখে প্রকাশিত হয়েছে।
মাদরাসার হিসাব অডিটকরণ পদ্ধতি

১.  প্রতিটি মাদরাসাকে প্রথমে মাদরাসা কমিটির অডিট গ্রুপ দ্বারা হিসাব অডিট করিয়ে নিতে হবে। তারপর সরকার অনুমোদিত চার্টার্ড একাউন্টেন্ট কোম্পানীর দ্বারাও অডিট করিয়ে নিতে হবে।
২. মাদরাসার স্থাবর-অস্থাবর যাবতীয় সম্পত্তি চার্টার্ড একাউন্টেন্টস্ কোম্পানী দ্বারা প্রতি বছর অডিট করিয়ে নিতে হবে।
৩. প্রতি বছর বেফাকের পক্ষ থেকে বেফাকভূক্ত মাদরাসা সমূহের হিসাব অডিট করার জন্য একটি চার্টার্ড কোম্পানীকে নিয়োগ দান করা হয়। এ কোম্পানী হিসাব অডিট করার সাথে হিসাব রক্ষকগণকে হিসাব রক্ষণ পদ্ধতিরও প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। চলতি ২০১৬-২০১৭ঈঃ ও ২০১৭-২০১৮ঈঃ সনের হিসাব নিরীক্ষণের জন্য “ মেসার্স এম, ইকবাল হোসেন এন্ড কোম্পানী” চার্টার্ড একাউন্টেন্টসকে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এ কোম্পনী দ্বারা হিসাব অডিট করার অনুরোধ করা হচ্ছে।
৪. নির্ধারিত অডিট ফি (প্রতি আর্থিক / সাল-এর জন্য) ঃ
(ক) তাকমীল দাওরায়ে হাদীস ২০০০/- (খ) ফযীলত (মেশকাত শরীফ) ১৮০০/-
(গ) শরহুল বিকায়া ১৫০০/-  (ঘ) শরহে জামী ও কাফিয়া ১২০০/-
(ঙ) নাহভেমীর ১০০০/-  (চ) প্রাইমারী ও হিফয ৮০০/-
(ছ) নিয়মিত মক্তব ৬০০/- (জ) ইলমুল কিরাআত ৮০০/-
অনুর্ধ ১০ লক্ষ টাকার হিসাব অডিটের জন্য উপরোক্ত হার কার্যকর হবে। আর ১০ লক্ষাধিক টাকার জন্য অডিটের নিকট আলোচনা সাপেক্ষে অডিট ফি দিতে হবে।
৫. অডিট প্রতিবেদনের পাঁচটি অনুলিপি বাংলা ভাষায় প্রস্তুত করে একটি অনুলিপি বেফাকের অডিট বিভাগে জমা দিয়ে প্রাপ্তি স্বীকারপত্র গ্রহণ করতঃ অডিটর তার সত্যায়িত ফটোকপি রেজিষ্টার্ড ডাক যোগে মাদরাসায় প্রেরণ করবেন এবং প্রাপ্তি স্বীকার পত্রের মূল কপিসহ তিনটি অডিট রিপোর্ট অবশ্যই মাদরাসাকে প্রেরণ করবেন। অডিট রিপোর্ট মাদরাসায় প্রেরণের পূর্বে অডিট ফি দাবী করা যাবে না।
৬. সিডিউল পত্রের সকল শর্ত প্রতিপালন করে এবং মাদরাসায় অডিটরকে স্বয়ং অথবা আবেদন পত্রে উল্লিখিত এবং পত্র দফতর কর্তৃক অনুমোদিত অডিট সম্পাদনকারীদের উপস্থিত হয়ে অডিট কাজ সম্পন্ন করতে হবে। অত্র দফতর কর্তৃক অনুমোদিত অডিট সম্পাদনকারীদের সত্যায়িত ছবি অডিটরকে মাদরাসা কর্র্তৃপক্ষের নিকট উপস্থাপন করতে হবে। কোন ফার্ম / অডিটর সংযুক্ত সম্মতি পত্রের (উপরোক্ত) শর্তাবলী মেনে নিয়ে অডিট কার্য সম্পাদন করতে সম্মত বা অসম্মত হলে তার সম্মতি / অসম্মতি কথা এবং সম্মতির ক্ষেত্রে একটি বাস্তব অডিট পোগ্রাম প্রস্তুত করে তার অনুলিপি নিয়োগপত্র প্রাপ্তির ১৫ দিনের মধ্যে অত্র দফতরে জমা দিবেন। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে উপরোক্ত কার্য গ্রহণ না করলে কোনরূপ পুনঃ নোটিশ ছাড়াই নিয়োগপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে।
৭. মাদরাসার হিসাবপত্র অডিটর যে অবস্থায় পাবেন, সে অবস্থায়ই অডিট সম্পাদন করে প্রতিবেদন পেশ করবেন। কোন মাদরাসায় অডিটরের প্রোগ্রাম অনুযায়ী নির্ধারিত তারিখে অডিট করাতে অসম্মতি / অপারগতা জানালে অডিটর এ ব্যাপারে মাদরাসা প্রধানের লিখিত বক্তব্য গ্রহণ করবেন। মাদরাসা প্রধান লিখিত বক্তব্য প্রদানে অসম্মতি জানালে বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভাবে মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি/সম্পাদককে লিখিতভাবে জানিয়ে তার অনুলিপি অত্র দফতরে প্রেরণ করবেন। অন্যথায় অডিটর মাদরাসায় যাননি বলে গণ্য করত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
৮. মাদরাসায় অডিট সম্পাদনকারী নিরীক্ষিত রেকর্ডপত্রে তার নিজ নাম স্বাক্ষর করবেন। স্বাক্ষরের নিচে স্পষ্টাক্ষরে তার পূর্ণ নাম লিখবেন এবং প্রয়োজনীয় সীল মোহর দিয়ে দিবেন।
৯. হিসাব অডিট করার জন্য অডিটর যখন যাবেন তখন বেফাক কর্তৃক সত্যায়িত ছবি অডিটর সঙ্গে রাখবেন। প্রয়োজনে মাদরাসা প্রধান নিয়োগপত্র ও ছবি যাচাই করবেন। অডিট সংক্রান্ত যাবতীয় রেকর্ডপত্র চাহিবামাত্র অডিটরকে তা প্রদর্শন করতে হবে। যদি কোন কারণ বশতঃ চলতি অর্থবছরের পূর্ববর্তী কোন আর্থিক বছরের অডিট করানো না হয়ে থাকে, তবে বর্তমানে নিযুক্ত অডিটর দ্বারা ঐসময়ের হিসাবের অডিট কার্য সম্পন্ন করতে পারবেন এবং তার জন্য হিসাব অনুযায়ী ফি প্রদান করতে হবে।
১০. অডিটরের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমে নির্ধারিত তারিখে সংশ্লিষ্ট মাদরাসার অডিট কার্য সম্পাদন করা ভাল। মাদরাসা কর্তৃপক্ষের কোন অবহেলার জন্য যদি হিসাব অসম্পূর্ণ থাকে তবে তার জন্য মাদরাসা কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবেন।
১১. স্বাভাবিক দৈনন্দিন রুটিন মাফিক কাজ-কর্ম অব্যাহত রেখেই অডিট কাজ সম্পাদন করতে হবে। মাদরাসা প্রধান/করণিকের অনুপস্থিতি, পরীক্ষা ইত্যাদি অজুহাতে অডিটের তারিখ পরিবর্তন না করার অনুরোধ করা গেল।
১২. অডিটর করানো হয় এরূপ সময়ের রেকর্ডপত্র যদি কোন তদন্ত কমিটি বা পরিচালনা কমিটি বাজেয়াপ্ত করে থাকে তবে বাজেয়াপ্ত রেকর্ডপত্রের সত্যায়িত ফটো অনুলিপি মাদরাসা প্রধান সংগ্রহ করে সংরক্ষণ করবেন। যাতে পরবর্তী সময়ের কার্যে কোন বিঘœ সৃষ্টি না হয়।
১৩. অডিট সংক্রান্ত সকল প্রকার পত্র-যোগাযোগ বেফাকের মহাসচিব বরাবরে বাংলা ভাষায় করতে হবে।
১৪. হিসাব নিরীক্ষণ উপলক্ষে যাতায়াত ভাতা ও প্রাপ্য অডিট ফি-এর ২৫./. পর্যন্ত অডিট ফার্মের প্রতিনিধির নিকট প্রদান করতে হবে। যাতায়াত ভাতা বৃদ্ধি করার সুপারিশ করা হয়েছে।
১৫. বেফাক কর্তৃক প্রদত্ত প্রাপ্তি স্বীকারপত্র ব্যতিত কোন অবস্থাতেই প্রতিষ্ঠান প্রধানের নিকট হতে বকেয়া অডিট ফিস আদায় করা যাবে না।

বাংলা